কে.এম হাসান ।। ফরিদগঞ্জের ভাটিয়ালপুরে এস এসএসসি পরীক্ষার্থী তাছলিমা(১৬) বাবার সাথে অভিমান করে গলায় ওড়না পেঁচিয়ে আত্মহত্যা করার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

সোমবার (৭ জুন) রাতে ফরিদগঞ্জ পৌর এলাকার ভাটিয়ালপুর গ্রামে এই ঘটনা ঘটে। পরে রাতেই লাশ উদ্ধার করে পরদিন মঙ্গলবার (৮ জুন) দুপুরে পোস্ট মর্টেমের জন্য চাঁদপুর ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালে প্রেরণ করেছে ফরিদগঞ্জ থানা পুলিশ।

 

জানা গেছে, ভাটিয়ালপুর গ্রামের সুরুজ আলী ছোট মেয়ে ফরিদগঞ্জ পাইলট বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ও এসএসসি পরীক্ষার্থী তাসলিমা আক্তার একটি বই ছিঁড়ে ফেলাকে কেন্দ্র করে সোমবার(৭ জুন) রাতে তার ছোট এক বছরের ভাতিজকে চড় থাপ্পড় মারে। ওই শিশুটিকে মারধরের কারণে তাসলিমার পিতা সুরুজ আলী তাসলিমাকে ভৎসনা করে। এতে অভিমান করে তাসলিমা পাশের পরিত্যক্ত একটি ঘরে গিয়ে গলায় ওড়না পেঁচিয়ে আত্মহনন করে।

 

সংবাদ পেয়ে ফরিদগঞ্জ থানা পুলিশ রাতেই লাশ উদ্ধার করে। পরদিন মঙ্গলবার (৮জুন’২১ খ্রিঃ) দুপুরে পোস্ট মর্টেমের জন্য চাঁদপুর ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালে প্রেরণ করে।

 

এব্যাপারে ফরিদগঞ্জ থানার ওসি( তদন্ত) মো: বাহার মিয়া লাশ উদ্ধারের বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, এসএসসি পরীক্ষার্থী তাসলিমার লাশ উদ্ধার করে আমরা পোস্ট মর্টেমের জন্য চাঁদপুরে প্রেরণ করেছি।