22 C
Bangladesh
Wednesday, January 26, 2022
spot_img

ফরিদগঞ্জে চেয়ারম্যান প্রার্থীর মোঃ হুমায়ুন কবির পাটোয়ারীর সংবাদ সম্মেলন

স্টাফ রিপোর্টার ।। চাঁদপুরের ফরিদগঞ্জ উপজেলার ১০নং গোবিন্দপুর দক্ষিণ ইউনিয়নের (চশমা প্রতীক)’র চেয়ারম্যান প্রার্থীর কর্মী-সমর্থকদের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানির প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন করেন মো: হুমায়ুন কবির পাটওয়ারীর।বুধবার (২২ ডিসেম্বর’২১ খ্রিঃ) বিকাল ৩টা, চশমা প্রতীকের চেয়ারম্যান প্রার্থী মোঃ হুমায়ুন কবির পাটোয়ারী তার নির্বাচনী অফিসে এ সংবাদ সম্মেলন করেন।

সংবাদ সম্মেলনে চেয়ারম্যান প্রার্থী মোঃ হুমায়ুন কবির পাটোয়ারী বলেন, আপনারা জানেন নির্বাচন কমিশন কর্তৃক ঘোষিত ৫ম ধাপের তফসিল অনুযায়ী ফরিদগঞ্জ উপজেলায় ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হচ্ছে। সেই মোতাবেক আমি ১০ নং গোবিন্দপুর দক্ষিণ ইউনিয়নের চেয়ারম্যান পদে জনগণের মনোনীত প্রার্থী হিসেবে চেয়ারম্যান হিসেবে প্রতিদ্বন্দ্বীতা করছি। আমার প্রতীক চশমা। তিনি বলেন, আমি ও আমার পরিবার আজন্ম আওয়ামীলীগ করি। আমার পরিবারে ১৬জন মুক্তিযোদ্ধা। আমার নানা মরহুম ফয়েজ বক্স পাটোয়ারী বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ চাঁদপুর মহকুমা শাখার প্রতিষ্ঠাতা সদস্য ছিলেন। নানা মরহুম ফয়েজ বক্স পাটোয়ারী টানা ৩৫ বছর নির্বাচিত জনপ্রতিনিধি হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। এরমধ্যে প্রথমে সংযুক্ত গোবিন্দপুর ইউনিয়নের প্রেসিডেন্ট টানা ৩ বার ও পরে গোবিন্দপুর দক্ষিণ ইউনিয়নের টানা দুইবার চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। ১৯৬৯ সালে গোবিন্দপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতির দায়িত্ব শুরু করে ১৯৭৫ সাল পর্যন্ত বিদ্যালয় পরিচালনার দায়িত্ব পালন করেন। আমার দাদা আব্দুল মজিদ পাটওয়ারী মুক্তিযুদ্ধ কালিন সময়ের পুরো ৯মাস মুক্তিযোদ্ধাদের খাবার, অর্থ ও চলাচলের জন্য নৌকা দিয়ে একজন সংগঠকের ভুমিকা পালন করেন।

আমার বাবা বীরমুক্তিযোদ্ধা মাওলানা মোহাম্মদ ইদ্রিস মিয়া পাটোয়ারী ধর্মীয় শিক্ষায় শিক্ষিত হয়ে গোবিন্দপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের ধর্মীয় শিক্ষক হিসেবে কর্মরত ছিলেন। পাশাপাশি ১৯৮৩ থেকে ২০০২ সাল পর্যন্ত গোবিন্দপুর দক্ষিণ ইউনিয়নের বাংলাদেশে আওয়ামী লীগের সভাপতির দায়িত্ব সফলতার সাথে পালন করেন। বর্তমানে তিনি গোবিন্দপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা হিসেবে দায়িত্বরত আছেন। এছাড়া মাওলানা ইদ্রিস মিয়া পাটোয়ারী দীর্ঘদিন মাধ্যমিক শিক্ষক সমিতি, ফরিদগঞ্জের সহ-সভাপতির দায়িত্ব সফলতার সাথে পালন করেন।

আমার চাচা বীরমুক্তিযোদ্ধা দেলোয়ার হোসেন নান্নু পাটওয়ারী মুক্তিযুদ্ধ চলাকালিন অন্যতম কমান্ডার ছিলেন। সেই পরিবারের সন্তান হিসেবে আমি এলাকার মানুষের চাপে বাধ্য হয়ে নির্বাচনী মাঠে অবতীর্ণ হয়েছি।প্রিয় ভাইয়েরা, নির্বাচনী তফসিল ঘোষনার পর আমি আওয়ামীলীগের দলীয় মনোনয়ন চেয়েছিলাম। দলীয় মনোনয়ন না পেলেও পারিবারিক ঐতিহ্য ও ইউনিয়ন বাসীর ভালবাসার কারণে নির্বাচনী মাঠে নেমেছি। আমি সর্বদা অহিংসবাদী। নির্বাচনী মাঠ প্রতিযোগিতার মাঠ। এই প্রতিযোগিতায় যিনি জনগনের আস্তা অর্জন করতে সক্ষম হবেন এবং ভোট পাবেন। তিনিই বিজয়ী হবেন।

কিন্তু দুঃখ জনক হলেও সত্য। প্রতিদ্বন্তি প্রার্থী অহিংস আচরণ করছেন না। বরং কৌশলে উদুর পিন্ডি ভুদুর ঘাড়ে তুলে দিয়ে হয়রানির নুতন রাস্তা বেছে নেয়া হয়েছে।

আপনারা জানেন, গত ২০ ডিসেম্বর রিটার্নিং অফিসার প্রার্থীদের প্রতীক বরাদ্দ দেন। ওই দিন প্রতীক নিয়ে আমরা যখন এলাকায় এসে মানুষের সাথে কুশল বিনিময় করছি। ঠিক তখনি সন্ধ্যার পর আমাদের পার্শ্ববর্তী চরদুঃখিয়া পশ্চিম ইউনিয়নে আওয়ামীলীগ প্রার্থী ও স্বতন্ত্র প্রার্থীর কর্মীদের মধ্যে ঝামেলা হয়েছে বলে শুনতে পাই। আমার ইউনিয়নের না বিধায় আমি এসব বিষয়ে মাথা ঘামাইনি। কিন্তু গত ২১ ডিসেম্বর সন্ধ্যার দিকে জানতে পারি এক আজব কাহিনী।

পার্শ্ববর্তী চরদুঃখিয়া পশ্চিম ইউনিয়নের ফিরোজপুর বাজারের ঘটনায় মামলা দায়ের হয়েছে। সেই মামলায় আমার সহোদর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সহসভাপতি আবু সায়েদ পাটওয়ারী, জহিরুল ইসলাম খান, রফিকুল ইসলাম পাটওয়ারী, আব্দুর রহমান খান, নাছির পাটওয়ারীসহ বেশ কয়েকজনকে ওই মামলায় এজাহার ভুক্ত আসামী করেছে। যা আমাকেসহ পুরো এলাকাবাসীকে হতবাক করেছে।

একটি ইউনিয়নের নির্বাচন সংশ্লিষ্ট ঘটনা অন্য ইউনিয়নের বাসিন্দাদের জড়ানো এবং কোনরূপ তদন্ত ছাড়া থানার অফিসার ইনচার্জ কিভাবে এই মামলা রেকর্ড করলো তা বোধগম্য নয়। তিনি বলেন, প্রিয় সাংবাদিক ভাইয়েরা, আজ এই সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে আমি ঘৃণ্য উদ্দেশ্যে দায়েরকৃত মামলায় আমার এলাকার লোকজনকে জড়ানোর ঘটনার প্রতিবাদ করছি। একই সাথে চাঁদপুর পুলিশ সুপার, ডিআইজিসহ সকলের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি।

আমরা একটি সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ নির্বাচন প্রত্যাশা করছি। যেখানে জনগণ তার পছন্দের প্রার্থীকে ভোট দিয়ে বিজয়ী করবে। এই পন্থায় যিনি জয়ী হবেন, তাকে আগাম অভিনন্দন। কিন্তু হামলা মামলাসহ নানা আতংক সৃষ্টি করে মানুষকে হয়রানি এবং প্রার্থী ও তার কর্মীদের হয়রানি পরিহার করবে বলে আশা প্রকাশ করছি। পরিশেষে তিনি সাংবাদিকদের কলমের শক্তি একটি সুষ্ঠু নির্বাচন পক্রিয়াকে এগিয়ে নিবে এই প্রত্যাশা ব্যক্ত করে তার বক্তব্য সমাপ্ত করেন।

Related Articles

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Stay Connected

0FansLike
3,139FollowersFollow
0SubscribersSubscribe
- Advertisement -spot_img

সর্বশেষ সংবাদ